গঙ্গাসাগর মেলার কমিটিতে শুভেন্দুকে রাখতে চায় না রাজ্য, আবেদন করে হাইকোর্টের দ্বারস্থ

15

মহানগর ডেস্ক: চলতি সপ্তাহে রয়েছে গঙ্গাসাগর মেলা। ইতিমধ্যেই মেলায় নজরদারির জন্য একটি কমিটি তৈরি করা হয়েছে। যেখানে থাকছে শুভেন্দু অধিকারী। এছাড়া রাজ্যের মুখ্যসচিব। কিন্তু এই কমিটিতে বিশেষজ্ঞদের বদলে শুভেন্দু অধিকারী কেন তাই নিয়ে প্রশ্ন তুলল রাজ্য সরকার। আর সেই প্রশ্ন নিয়ে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হল তৃণমূল। নবান্ন অভিযোগ তুলেছে, বিরোধী দলনেতাকে ওই কমিটিতে শামিল করে রাজনৈতিক রঙ লেগেছে। সুতরাং শুভেন্দু অধিকারীকে বাদ দিয়েই এই কমিটি তৈরি হোক।

এমনকি অভিজ্ঞ চিকিৎসকের নামও সুপারিশ করেছে রাজ্য সরকার। সোমবার আদালতে গঙ্গাসাগর মেলার শুনানি শেষ হয়। তবে রায়দান এখনও হয়নি। স্থগিত করা হয়েছে। করোনা পরিস্থিতিতে গঙ্গাসাগর মেলা নিয়েই হাইকোর্টে মামলা দায়ের হয়েছিল। কিন্তু সেই মেলাতেই অনুমতি দেওয়া হয়েছে। করোনার বিধিনিষেধ মেনে এই মেলা হবে বলে জানিয়েছিল হাইকোর্ট। সামাজিক দূরত্ব বৃদ্ধি জমায়েত না করার মত শর্ত বেঁধে দেওয়া হয়েছিল আদালতে তরফের। কোথাও যদি কোনও ভুল চোখে পড়ে তাহলে মেলা বাতিল করে দেওয়া হবে বলেও জানানো হয়েছিল।

তার জন্য তিন সদস্যের কমিটিও তৈরি করা হয়েছিল হাইকোর্টের তরফে। সেই কমিটিতে উপস্থিত ছিলেন বিরোধী দলনেতা। কিন্তু সোমবার আদালতে একাধিক আবেদন জমা করা হয়। তার মধ্যে নবান্নে তরফের ছিল এই পৃথক আবেদন। যেখানে জানানো হয় শুভেন্দু একজন আদ্যোপান্ত রাজনৈতিক মানুষ। বিরোধী দলনেতা। তাই গঙ্গাসাগর মেলার নিরপেক্ষ কমিটিতে তাকে কোনও ভাবেই রাখা উচিত নয়। কারণ তাতে গঙ্গাসাগর মেলার রাজনীতির রং লাগবে।