‘তোলাবাজির খবর পেলে আমার অফিসে এসে অভিযোগ জানান’, কড়া বার্তা সাংসদ মহুয়া মৈত্রের

126

মহানগর ডেস্ক: বুধবার নবান্ন থেকে সাংবাদিক বৈঠক করে একাধিক বিষয় নিয়ে কড়া বার্তা দিতে দেখা গিয়েছিল মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। তিনি বলেছিলেন, রাজ্যে দুর্নীতি কিংবা দলকে সামনে রেখে কোন নেতার প্রতারণা, তোলাবাজি ও চুরি কোন কিছুই বরদাস্ত করবে না দল। প্রত্যেকের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। নির্ভয় পুলিশের কাছে গিয়ে অভিযোগ দায়ের করুন। এবার একই কথা শোনা গেল সাংসদ মহুয়া মৈত্রের গলায়। মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণার কয়েক ঘণ্টা পরই প্রতিবাদী হয়ে ওঠেন তিনিও।

মুখ্যমন্ত্রীর এহেন কঠোর ঘোষণার পর সোশ্যাল মিডিয়ায় দেখা যায় নদিয়ার সাংসদ মহুয়া মৈত্র পোস্ট। তিনি সেখানে লেখেন, “মুখ্যমন্ত্রী বার বার বলছেন যে দলকে সামনে রেখে কোনও রকমের তোলাবাজি করা যাবে না। চাকরি দেওয়ার নাম করে কিংবা TET প্যানেল-এ নথিভুক্ত করার নাম করে, সরকারি কাজ করিয়ে দেওয়ার নাম করে কেউ যদি মানুষকে প্রতারণা করে, তাহলে আসুন নির্ভয়ে এখুনি পুলিশ বা আমার অফিসে এসে লিখিত অভিযোগ করুন।”

সঙ্গে তিনি আরও লেখেন, “ভয় পাবেন না। চোর, প্রতারককে ভয় করার কোনও কারণ নেই। যতই প্রভাবশালী হন না কেন, এক দিন না এক দিন ধরা পড়বেনই—তাই দয়া করে এগিয়ে আসুন, চলুন এই চক্রগুলিকে বন্ধ করি।” অর্থাৎ বলা যায়, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের পর এবার করা হাতে ব্যবস্থা নিতে নেমেছেন তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্র।

প্রসঙ্গত, তেহট্ট -এর বিধায়ক তাপসকুমার সাহার বিরুদ্ধে চাকরি দেওয়ার নাম করে কয়েক কোটি টাকা প্রতারণার অভিযোগ উঠেছে। এই বিষয়কে কেন্দ্র করে ঘটনার সত্যতা যাচাইয়ের জন্য, প্রশাসনের পাশাপাশি আলাদা করে তদন্ত শুরু করেছে তৃণমূল। এমন পরিস্থিতিতে করা হাতে মহুয়া মৈত্রের এই অন্যায় দমনের যে ব্যবস্থাপনা যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলা যেতে পারে।