ভাতা বৃদ্ধির বালাই নেই, সরকার তোলাবাজিতে ব্যস্ত! চাঁচাছোলা আক্রমণ সুজনের

5
kolkata bengali news

Highlights

  • অঙ্গনওয়াড়ি কর্মী ও সহায়িকাদের ভাতা বৃদ্ধি করছে না রাজ্য সরকার
  •  বেতন বৃদ্ধি দাবি প্রসঙ্গে বক্তব্য রাখতে গিয়ে বললেন বামফ্রন্টের পরিষদীয় দলনেতা
  • সুজন চক্রবর্তী বলেন, সমস্যার কথা তাঁদের কানে যাচ্ছে না কারণ তাঁরা তোলাবাজিতে ব্যস্ত

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ‘দুধ থেকে চাল, তেল নুন, জ্বালানি সব দাম বাড়লেও অঙ্গনওয়াড়ি কর্মী ও সহায়িকাদের ভাতা বৃদ্ধি করছে না রাজ্য সরকার। তারা ব্যস্ত তোলাবাজি করতে।’ আইসিডিএস অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীদের বেতন বৃদ্ধি দাবি প্রসঙ্গে বক্তব্য রাখতে গিয়ে এভাবে সরকারের তুলনা করেন বামফ্রন্টের পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তী। তবে শুধু তাই নয় আন্দোলনের পথে থেকেই সরকারের থেকে দাবি আদায় করতে হবে বলেও জানান তিনি।

দীর্ঘদিন ধরে রাজ্যের সমস্ত স্তরের কর্মীদের সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধি হলেও বঞ্চিত হয়ে গিয়েছে আইসিডিএস অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীরা। এই বিষয়টিকে কেন্দ্র করে সরব হন সুজন চক্রবর্তী। এ বিষয়ে বক্তব্য রাখতে গিয়ে সুজন চক্রবর্তী বলেন, ‘রাজ্যকে বহুবার এনিয়ে চিঠি দিয়েছি। আপনাদের সমস্যার কথা তাঁদের কানে যাচ্ছে না কারণ তাঁরা তোলাবাজিতে ব্যস্ত। সরকারি কর্মীদের ডিএ থেকে বঞ্চিত করছে সরকার। সব দপ্তরে চুক্তিভিত্তিক ও প্রকল্প কর্মী নিয়োগ নিয়েও সরব হন তিনি। আইসিডিএস কর্মীদের নানা কাজে কথা তুলে ধরে বলেন, এঁরা গোটা রাজ্যজুড়ে এত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে আর এঁদের দিকে রাজ্য সরকার ফিরেও তাকাচ্ছে না। দুধ থেকে চাল, তেল নুন, জ্বালানি সব দাম বাড়লেও অঙ্গনওয়াড়ি কর্মী ও সহায়িকাদের ভাতা বৃদ্ধি করেনি রাজ্য সরকার। তাই আন্দোলনের পথে থেকেই সরকারের থেকে দাবি আদায় করতে হবে।’

প্রসঙ্গত, ভাতা বৃদ্ধি, অবসরের সময় একাকালীন টাকা ও অবসর ভাতা চালু করা সহ ৫ দফা দাবিতে কেন্দ্র ও রাজ্যের সরকারের বিরুদ্ধে ফের পথে নামলেন এরাজ্যের অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীরা। দাবিগুলিকে সামনে রেখে বিধানসভা অভিযানে শামিল হলেন তাঁরা। এই অভিযানের ডাক দিয়েছিল পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য আইসিডিএস কর্মী সমিতি। পরে কর্মীদের আন্দোলনের চাপে বাধ্য হয়ে তাদের সঙ্গে কথা বলেন রাজ্যের নারী ও শিশু কল্যাণ মন্ত্রী ডাঃ শশী পাঁজা। সংগঠনের রাজ্য সম্পাদিকা রত্না রায়ের নেতৃত্বে ৮ সদস্যের প্রতিনিধি দল বিধানসভায় গিয়ে দীর্ঘ সময় আলোচনা করেন দাবিগুলি নিয়ে।