‘…দেয়া-নেয়ার আসল খেলা!! দিদি-মোদির জমেছে বেশ’, রাজীবকে নিয়ে কবিতা লিখলেন সুজন

16

মহানগর ডেস্ক: রবিবার সকাল-সন্ধ্যা খবরের শিরোনামে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। বিধানসভা নির্বাচনের আগে তৃণমূল থেকে গিয়েছিলেন বিজেপিতে। আজ আবার ফিরলেন পুরনো দলে। ডোমজুরের জননেতার ঘরে ফেরার খবর প্রকাশের পর শুরু হয়েছে বিভিন্ন মন্তব্য। ঘটনাকে কেন্দ্র করে যেমন আস্ত একটা কবিতা লিখে ফেললেন সুজন চক্রবর্তী।

রাজীবের তৃণমূলে ফেরার প্রসঙ্গে নানাজনের নানা মত। অন্যরকম মন্তব্য ঘাসফুল শিবিরের অন্দরেই। ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেছেন, “ভোটের সময় ডোমজুড়ের এক সভায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন, রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের ৩-৪টি বাড়ি রয়েছে গড়িয়াহাটে। দুবাইয়ে তাঁরা টাকার লেনদেন চলছিল। তার পরেও তাঁকে কেন দলে নেওয়া হল, তা শীর্ষ নেতৃত্ব বলতে পারবেন।”

“অভিষেক বলেছিলেন, দলের কোনও কর্মীর মনে আঘাত করে কোনও বিশ্বাসঘাতককে দলে নেওয়া হবে না। তৃণমূলে থাকতে হলে দলের শীর্ষ নেতৃত্ব যা সিদ্ধান্ত নেবেন, তা মেনেই সবাইকে চলতে হবে। আমাকেও চলতে হবে। এরকম একটা টপ টু বটম কোরাপ্টেড লোককে দলে কেন নেওয়া হল।”

যদিও রাজীবকে ‘ভালো ছেলে’ বলেছেন অনুব্রত মণ্ডল। অন্যদিকে বিজেপির অর্জুন সিং-এর মন্তব্য, “রাজীব তো ৫৫ বছরের শিশু। তাই বিজেপি ওকে ভুলভাল বুঝিয়ে দলে টানতে পেরেছিল। ওঁকে কে দলে এনেছিল! ও তো কিছুই বোঝে না। আসলে এখানে ফায়দা না পেয়ে আবারও তৃণমূলে ফিরে গিয়েছে।”

সামাজিক মাধ্যমে বাম নেতা সুজন চক্রবর্তী তাঁর কবিতাটি পোস্ট করেছেন-

তৃনমূল থেকে বিজেপি হয়ে
রাজীব ত্রিপুরায় তৃণমূলে।।

পিসির ছবি নিয়ে প্রস্থান,
ভাইপোর পতাকায় গমন।
আয়ারাম-গয়ারামের
তৃনমূলী খেলাই বটে!!

দমবন্ধ দশায় বিজেপি।
দমের আশায় আবার তৃণমূল।
ক্ষমতা আর সম্পদের
ধান্দাতেই যে
বিজেপি-তৃনমূলের
দম দেয়া-নেয়ার
আসল খেলা!!

দিদি-মোদির জমেছে বেশ।।