কাটমানি আদায়ের কাউন্টার কি নবান্নে খুলবে! মমতাকে প্রশ্ন সুজনের

506

মহানগর ওয়েবডেস্ক: দীর্ঘ ৮ বছর বাংলায় সরকার চালানোর পর, অবশেষে নিচুতলার নেতাদের কাটমানির ভাগাভাগিতে নজর পড়েছে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। সম্প্রতি নজরুল মঞ্চে কর্মিসভায় দলীয় কাউন্সিলরদের হুঁশিয়ারি দিয়ে মমতা জানিয়ে দিয়েছেন, ‘কাটমানি নিয়ে থাকলে সে টাকা ফেরত দিন। নাহলে কিন্তু কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হবে।’ মমতার এই হুঁশিয়ারির পরই এবার তাঁকে আক্রমণ শানালেন বিধানসভায় বামেদের পারিষদীয় নেতা সুজন চক্রবর্তী।

এদিন তৃণমূলের এই কাটমানি ইস্যুকে হাতিয়ার করে সুজন চক্রবর্তী বলেন, ‘মুখ্যমন্ত্রীর যদি সাহস থাকে তবে কে কত টাকা কাটমানি খেয়েছে তার তালিকা প্রকাশ করুন। গত তিন মাসে এই কাটমানি বাবদ কে কত টাকা খেয়েছে তা প্রকাশ করুন তবে বুঝব বোধদয় হয়েছে।’ পাশাপাশি তিনি আরও বলেন, ‘কীভাবে কাটমানি ফেরত দেওয়া হবে তা জানান উনি। তবে কি কাটমানি ফেরত দেওয়ার জন্য নবান্নে আলাদা কোনও কাউন্টার খোলা হবে?’ তবে কীভাবে তোলা আদায় করতে হয় তা মমতার মুখস্ত কলেও দাবি করেন তিনি।

উল্লেখ্য, দিনকয়েক আগেই নেতা-মন্ত্রীদের সঙ্গে ভোটের ফলাফল পর্যালোচনার বৈঠকে ‘কাটমানি’ প্রসঙ্গ নিয়ে তুলোধনা করেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সম্প্রতি কর্মিসভার বৈঠকে তাঁর কথায় উঠে আসে টাকা নেওয়ার বিষয়টি। কাউন্সিলদের উপস্থিতিতে কড়া সুরে তিনি জানিয়ে দেন, ‘কেউ যদি টাকা নিয়ে থাকে তবে তা ফেরত দিয়ে দিন, নাহলে কিন্তু কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হবে।’ মুখ্যমন্ত্রীর সাফ কথা, ‘সমব্যথী প্রকল্পের ২০০০ টাকার মধ্যে ২০০ টাকা সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে। বাংলার বাড়ি প্রকল্প থেকেও ২০ শতাংশ করে টাকা সরানো হচ্ছে বহু জায়গায়। মনে রাখবেন আমি কিন্তু এগুলো সহ্য করব না। এই সব প্রকল্পগুলো গরিব মানুষদের স্বার্থে করা হয়েছে। কেউ টাকা নিয়ে থাকলে তা ফেরত দিন।’ কাউন্সিলরদের উদ্দেশ্য করে তাঁর আরও শ্লেষ, ‘তোমাদের জন্যই আমার এত বদনাম।’