ফুল বদল বিজেপি নেতার! শুভেন্দুর বিরুদ্ধে মুখ খোলায় বহিষ্কার নেতা এবার তৃণমূলে

11
Surajit Saha
শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে মুখ খোলায় বহিস্কৃত সুরজিৎ সাহা এবার তৃণমূলে।

মহানগর ডেস্ক: সম্প্রতি হাওড়ার সদরের বিজেপি প্রাক্তন জেলা সভাপতি সুরজিৎ সাহাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছিল। কারণ হিসেবে জানা গিয়েছিল, দলে থাকা অবস্থায় শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে মুখ খুলে ছিলেন তিনি। যার কারণে এটি ছিল তাঁর শাস্তি। কিন্তু কলকাতা পুরভোটের আগেই বড় চমক। জানা গিয়েছে, এবার ফুল বদল করতে চলেছেন সুরজিৎ সাহা। সম্প্রতি নারদা কান্ডের প্রসঙ্গ টেনে শুভেন্দু অধিকারীকে কার্যত চোর বলে কটাক্ষ করেছিলেন তিনি। এবার সেই সুরজিৎ সাহা বৃহস্পতিবার শরৎ সদনে রাজ্যের শাসকদলের আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানে তৃণমূলের পতাকা তুলে নেবেন।

এই প্রসঙ্গে রাজ্যের সমবায় মন্ত্রী অরূপ রায় জানিয়েছেন, সুরজিৎ সাহা তৃণমূলের যোগদানে আগ্রহ প্রকাশ করে লিখিত আবেদনে তা জানিয়েছিলেন। তাঁর সেই আবেদনপত্র দলনেত্রীর কাছে পাঠানো হয়েছে। এছাড়াও জেলা তৃণমূল সভাপতি নজরে বিষয়টি আনা হয়েছে। দলের তরফে সুরোজিতের যোগদানে সম্মতি দেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি। একই সঙ্গে তিনি আরও জানিয়েছেন, সুরজিৎ সাহা উপলব্ধি করেছেন একমাত্র তৃণমূলই রাজ্যের প্রকৃত উন্নয়ন করতে পারে। একুশের বিধানসভা নির্বাচনের পর থেকেই দলের অন্দরে শুরু হয়েছে কোন্দল। শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে বারংবার সুর চড়িয়েছিলেন বিজেপি নেতা সুরজিৎ সাহা।

সেই সময় তিনি জানিয়েছিলেন, আমরা বিজেপিতে থাকব। আমাদের কারোর থেকে সার্টিফিকেট নেওয়ার দরকার নেই। ছয় মাস আগে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে আশা শুভেন্দু অধিকারীর থেকে দলের কর্মীদের সততার সার্টিফিকেট চাইনা। বরং তাঁকে প্রমাণ করতে হবে তিনি কত বড় নেতা। বিজেপি নেতা সুরজিৎ সাহার মন্তব্যের পরই বঙ্গ রাজনীতি তোলপাড় শুরু হয়ে যায়। সঙ্গে সঙ্গেই বহিষ্কার করা হয় তাঁকে। এই প্রসঙ্গে সুকান্ত মজুমদার জানিয়েছেন, দলের বৈঠকের কথা বাইরে নিয়ে আসা নিয়মবহির্ভূত।