‘নিভতে চলেছে শুভেন্দু অধিকারীর লালবাতি, তৃণমূলে ফেরা শুধু সময়ের অপেক্ষা’, চাঞ্চল্যকর মন্তব্য মন্ত্রীর

13
Suvendu Adhikari
এবার শুধু সময়ের অপেক্ষা, তৃণমূলে যোগদান করতে পারেন শুভেন্দু অধিকারী, জানালেন মন্ত্রীর সৌমেন মহাপাত্র।

মহানগর ডেস্ক: চলতি বছর বিধানসভা নির্বাচনের আগেই বদলে ছিল রাজনীতির হাওয়া। একে একে তৃণমূলের প্রথম সারিতে দাঁড়িয়ে থাকা নেতা-নেত্রীরা ভিড় জমিয়েছিলেন বিজেপিতে। কিন্তু তার পরেও বিধানসভা নির্বাচনে বিপুল ভোটে জয়ী হয়ে তৃতীয় বার সরকার গঠন করে তৃণমূল। সেখানেই মুখ থুবড়ে পড়ে বিজেপি। তারপর থেকেই আবারও একের পর এক করে তৃণমূলে যোগদান করতে থাকেন নেতা-নেত্রীরা। সম্প্রতি তৃণমূলে যোগদান করেছেন রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। আর এর পরেই শুভেন্দু অধিকারী তৃণমূলে ফিরে আসা নিয়ে জল্পনা উস্কে দিলেন রাজ্যের মন্ত্রী সৌমেন মহাপাত্র।

রাজ্যের বিরোধী দলনেতা সম্পর্কে বিরূপ মন্তব্য করলেন তিনি। মন্ত্রী জানিয়েছেন, ‘বিরোধী দল নেতার লালবাতি কিছুদিনের মধ্যেই নিভছে। তৃণমূলে ফিরতে পারেন তিনি। শুধু এবার সময়ের অপেক্ষা’। আর সৌমেন মহাপাত্রের এই মন্তব্যের পর রাজনৈতিক মহলে শুরু হয়ে গিয়েছে জল্পনা। বিজেপির আসন সংখ্যা খুব শীঘ্রই ৩০-র নিচে নেমে আসবে বলেও মনে করেছেন মন্ত্রী। এই প্রসঙ্গে তিনি জানিয়েছেন, ‘শুধু সময়ের অপেক্ষা। শুভেন্দু অধিকারীর নিজেই ফিরে আসতে পারেন। নন্দীগ্রাম বিধানসভার ফলাফল নিয়ে আদালতে মামলা চলছে। সেই মামলার রায় বেরোলেই তিনি আর বিরোধী দলনেতা থাকবেন না রাজ্যের’।

রবিবারের সভা মঞ্চ থেকে কেন্দ্রীয় সরকারের স্বৈরতান্ত্রিক মনোভাবের বিরুদ্ধে, পেট্রোল-ডিজেলের দাম, রান্নার গ্যাসের দাম, নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদ এবং কেন্দ্রীয় সরকারের সিবিআই দ্বারা নন্দীগ্রামে তৃণমূল কংগ্রেসের নেতাকর্মীদের মিথ্যা মামলা বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানান রাজ্যের মন্ত্রী। একই সঙ্গে এই সভা মঞ্চ থেকে আগামী ১০ নভেম্বর নন্দীগ্রামের শহীদ দিবস উদযাপন করা হবে বলেও জানা গেছে। উল্লেখ্য, সম্প্রতি বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীকে নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করেছিলেন সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়।

তিনি জানিয়েছিলেন, ‘রাগ করিস না শুভেন্দু, অনেক কথা বলে ফেলেছি। আর রাগ করিস না। কখন কোনদিন তুই চলে আসবি, আমার থেকে অনেক কাছের হয়ে উঠবি তৃণমূলের’। এই মন্তব্যের পরই জল্পনা তুঙ্গে উঠে ছিল। বর্তমানে গোটা রাজনৈতিক মহলেই একটি প্রশ্নই ঘুরে বেড়াচ্ছে, কবে শুভেন্দু অধিকারী আবারও নিজের পুরনো ঘরে ফিরে আসবেন!