লোকায়ুক্ত নিয়োগের বৈঠকে উপস্থিত থাকছেন না শুভেন্দু অধিকারী, থাকবেন মুখ্যমন্ত্রী ও স্পিকার

10

মহানগর ডেস্ক: গত সপ্তাহেই জানা গিয়েছিল, সোমবার বৈঠকে বসতে চলেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং বিধানসভার অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু সেটি কিসের বৈঠক তা অজানা ছিল। অবশেষে জানা গিয়েছে, আজ লোকায়ুক্ত নিযুক্ত হতেন চলেছে। আর সেই সংক্রান্ত বিষয়ে বিধানসভা ভবনে অধ্যক্ষের দপ্তরে বৈঠক হবে। বৈঠকে উপস্থিত থাকবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, বিধানসভার অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়, পরিষদীয় মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। এমনকি উপস্থিত থাকার কথা ছিল বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর। কিন্তু শেষ মুহূর্তে তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দেন, ১৫ মিনিটের এই প্রহসনের বৈঠকে তিনি উপস্থিত থাকবেন না।

সূত্রের খবর অনুযায়ী জানা গিয়েছে, সোমবার বেলা ১২.৩০ নাগাদ লোকায়ুক্ত সংক্রান্ত বৈঠক হওয়ার কথা ছিল। তার ১৫ মিনিট পরেই অর্থাৎ ১২.৪৫ মানবাধিকার কমিশনের নতুন চেয়ারম্যান নিয়োগ সংক্রান্ত আরও একটি বৈঠকের সম্ভাবনা রয়েছে। দু’টি বৈঠকের কোনওটিতেই থাকবেন না রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। যা তিনি পরিষ্কারভাবে জানিয়ে দিয়েছেন। তাঁর দাবি রাজ্যের প্রস্তাবিত নাম দেখে তিনি বিকল্প প্রস্তাব দিতে পারেন। এমনকি নবান্নে সে কথা জানিয়ে চিঠি দিলেও প্রতুত্তরে কোনও পদক্ষেপ করেননি রাজ্য সরকার। শুধু তাই নয়, তিনি আরও অভিযোগ করেছেন, রাজ্য সরকার নিজেই নিজের মত নাম ঠিক করে নিয়েছে। ১৫ মিনিটের ওই বৈঠকের সম্মতি জানানোর জন্য ডাকা হয়েছে শুভেন্দু অধিকারীকে। তাঁর মতামত জানতে চাওয়া হয়নি।

শুধু লোকায়ুক্ত নিয়োগ নয়, মানবাধিকার কমিশনের নতুন চেয়ারম্যান নিয়োগের ক্ষেত্রেও একই পথ বেছে নিয়েছেন তিনি। পাশাপাশি তিনি আরও জানিয়েছেন, এই ধরনের গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক ১৫ মিনিটের মধ্যেই কিভাবে শেষ হয়ে যায়! ফলে আলোচনার কোনও সুযোগ থাকছে না। আগে থেকেই সিদ্ধান্ত নিয়ে নেওয়া হয়েছে, আর নিয়োগের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়ার এক্তিয়ার রাজ্যপালের রয়েছে। কি করে মুখ্যমন্ত্রী এখানে সিদ্ধান্ত নেন! সেখানে উঠছে প্রশ্ন। এখনও পর্যন্ত সরকারের প্রস্তাব দেখেননি তিনি। তাই প্রয়োজন হলে বিকল্প প্রস্তাব পাঠাব বলেও জানান শুভেন্দু অধিকারী। সংবিধান অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবেন রাজ্যপাল।