করোনায় মৃত্যু বাবা-মায়ের, শিশুদের বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য দেওয়ার নির্দেশ শিশু সুরক্ষা কমিশনের

24
corona childreb

মহানগর ডেস্ক:   করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে অনেক শিশু বাবা কিংবা মাকে হারিয়েছেন। অনেক শিশুই আবার করোনায় বাবা-মা দুজনকে হারিয়েছেন। এই বিষয়ে দেশের সমস্ত রাজ্যকে বিস্তারিত তথ্য জানানোর নির্দেশ দিল  ‘ন্যাশনাল কমিশন ফর প্রোটেকশন অব চাইল্ড রাইটস’।

সমস্ত রাজ্য ও কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলগুলোর মুখ্যসচিবকে পাঠানো চিঠিতে  শিশু সুরক্ষা কমিশন বলেছে,  করোনা দ্বিতীয় ঢেউ ভারতের খুব মারাত্মকভাবে প্রভাব বিস্তার করেছে। এই পরিস্থিতিতে বিভিন্ন রাজ্যে অনেক ক্ষেত্রেই করোনার জেরে অনেক শিশুর বাবা বা মা মারা গেছে। করোনায় অনেক শিশুই তাঁদের বাবা-মা দুজনকে হারিয়েছেন। এই শিশুদের বিস্তারিত তথ্য দ্রুত পোর্টালে আপডেট করতে হবে। এই শিশুদের যাতে কোনও সমস্যা না হয়, সেই দিকে নজর রাখবে কমিশন বলে জানানো হয়েছে।

কেন্দ্রীয় নারী ও শিশু কল্যাণ মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি মঙ্গলবার জানিয়েছিলেন, দেশে এখনও পর্যন্ত প্রায় ৫৭৭ জন শিশু তাঁদের বাবা-মাকে হারিয়ে অনাথ হয়ে গিয়েছে। তিনি সমস্ত রাজ্য ও কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলগুলোকে ২০২০ সালের ১ এপ্রিল থেকে ২০২১ সালের ২৫ মার্চ পর্যন্ত  রিপোর্ট জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

পাশাপাশি সুপ্রিম কোর্ট দেশের প্রতিটি রাজ্য ও কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলের প্রতিটি জেলার আধিকারিকদের নির্দেশ দিয়েছে, ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ‘বাল স্বরাজ’ পোর্টালে কোভিডে বাবা অথবা মাকে হারানো শিশুদের তথ্য নথিভুক্ত করতে হবে। 

করোনায় অনাথ হওয়া শিশুদের পড়াশোনার দায়িত্ব ইতিমধ্যে বেশ কয়েকটি রাজ্য সরকার নিয়েছে। দিল্লি, মধ্যপ্রদেশষ ছত্তিশগড় আগেই নিয়েছিল। কেরল সরকার এই বিষয়ে শুক্রবার একটি বিবৃতি ঘোষণা করে। সেখানে জানানো হয়েছে,  করোনায় বাবা-মাকে হারানো অনাথ শিশুদের গ্র্যাজুয়েশন অবধি পড়াশোনার দায়িত্ব নেবে রাজ্য সরকার। পাশাপাশি তাদের আর্থিক সাহায্যও করা হবে।