পুরীর ধাঁচেই দীঘায় তৈরি হবে জগন্নাথ মন্দির, বরাদ্দ হল ১২৮ কোটি টাকা

45
Digha
এবার পুরীর ধাঁচেই দীঘায় তৈরি হবে জগন্নাথ মন্দির।

মহানগর ডেস্ক: এবার পুরীর ধাঁচেই দীঘায় তৈরি হবে জগন্নাথ মন্দির। পরিকল্পনা আগেই ছিল এবার তা বাস্তবে রূপায়িত হতে চলেছে। আগেই এলাকা পরিদর্শন করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল যে পুরীর জগন্নাথ মন্দিরের ধাঁচেই তৈরি হবে দীঘায় জগন্নাথ মন্দির। এবার সেই পরিকল্পনায় ১২৮ কোটি টাকা বরাদ্দ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বৃহস্পতিবার কলকাতায় পুরভোটের নির্বাচনী সভায় এমনটাই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। প্রচার মঞ্চ থেকে মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, আমি আজই এই ব্যাপারে অর্থ বরাদ্দ করেছি। আমি চাই পুরীর মতই জগন্নাথ মন্দির তৈরি হোক দিঘাতেও।

প্রসঙ্গত, গত দু’বছর আগে দিঘা সফরে গিয়ে সমুদ্রের ধারে জগন্নাথ মন্দির পরিদর্শন করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর তখনই তিনি সিদ্ধান্ত নেন বড় আকারের মন্দির তৈরি হবে দিঘাতেও। পাশাপাশি এদিন প্রচার সভা থেকে কালীঘাট স্কাইওয়াকের কথাও আলোচনা করা হয়। কালীঘাটের স্কাইওয়াক হচ্ছে ২৫০ কোটি টাকার। কাজ দেখবেন হাজরা পার্কের। কতগুলো দোকান তৈরি হয়েছে। কালীঘাটের স্কাইওয়াক করব বলে ওখানে যারা দোকান ছিল তাদের আপাতত হাজরা পার্কের ভিতর দোকান করে দিয়েছি। যখন স্কার্টটা তৈরি হয়ে যাবে তখন স্কাইওয়াকের ভেতরে দোকান পেয়ে যাবে তারা।

সম্প্রতি, ইউনেস্কোর তরফে বাংলা দুর্গাপুজোকে হেরিটেজ তকমা দাওয়া হয়েছে। আর সেই নিয়েই তৃণমূল বিজেপির মধ্যে তৈরি হয়েছে দ্বন্দ্ব। একুশের বিধানসভা নির্বাচন করতে এসে দুর্গাপূজা নিয়ে একাধিক কটাক্ষ করেছিল বিজেপি। সেই নিয়ে প্রচার মঞ্চ থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানান যে, ইউনেস্কোর স্বীকৃতি এবার বিজেপির মুখে চুনকালি লাগিয়ে দিল। তার কথায় আমায় গাল দিয়েছে, এবার ইউনেস্কো ওদের উল্টে গাল দিয়েছে। প্রচার করতে এসে তৃণমূল সুপ্রিমো জানান, ইউনেস্কোকে অনেক ধন্যবাদ। আমার হৃদয় ভরে গিয়েছে। যারা বলতো মমতাজি পুজো করতে দেয় না, তাদের মুখে চুনকালি। আমি গর্বিত, সুরভিত, কল্লোলিত, বিকশিত। বলেছিলাম বাংলাকে বিশ্বসেরা করব, সারা পৃথিবীতে বন্দিত বাংলা।