ঝগড়া করতে করতে শেষ কংগ্রেস, তৃণমূলেরও তাই হবে: দিলীপ ঘোষ

8

মহানগর ডেস্ক: দিলীপ ঘোষের মর্নিংওয়াক মানেই কেউ তার হাত থেকে নিস্তার পাবে না। সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয় একেক দিন একেক জন রাজনীতিবিদদের আক্রমণ করেন তিনি। গোটা বিশ্ব বাজারে অপরিশোধিত তেলের দাম ব্যারল পিছু রেকর্ড ছড়ালেও ভারতে বাড়েনি এখনও তেলের দাম। ভোটের পর বাড়বে কিনা সেই নিয়ে দিলীপ ঘোষকে প্রশ্ন করা হলে, তিনি বলেন, এটি সরকার ঠিক করে না। কমিটি ঠিক করে। আর আগে দাম বেড়েছে তখন সবাই চিৎকার করেছিল। তখন কমানো হয়েছে। অনেকবার দাম কমার পরেও বর্তমান রাজ্য সরকার দাম কম করেনি। অনেক কিছু বিষয়ের উপরে নির্ভর করে। কংগ্রেস যা নিয়ম করেছে তার ওপরই চলছে এখানে।

অখিলেশ যাদব এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বৈঠক নিয়ে দিলীপ ঘোষ মন্তব্য করে বলেন, এই বৈঠক আগেও হয়েছে। অখিলেশ যাদব অনেক এসেছে। ২০১৯ সালে এসেছিল। কিন্তু কে কাকে সাহায্য করছে! সবার তো সিট কমেছে, প্রতিনিধি নেই লোকসভায়। এইসব নাটক নির্বাচনে আগেও হয়। সাধারন ভোটারদের বিভ্রান্ত করার চেষ্টা হয়। যেখানে বলা হয় এই করে দেব সেই করে দেব।

একই সঙ্গে এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উত্তরপ্রদেশ সফর নিয়ে তিনি বলেন, এর আগেও লখনউ, পাটনা গেছে কি প্রভাব পড়েছে। তার পার্টির কিছু নেই। বাকিদের কি সাহায্য করবে, কি প্রভাব আছে। উত্তরপ্রদেশে অখিলেশ যাদব বুঝতে পেরেছে, আর নয়, নতুন লোক নিয়ে প্রচার করার চেষ্টা করছে। ওখানকার লোক যোগী সরকারকে দেখছে। সব ভোট ওখানেই পড়বে।

শ্রমিক অসন্তোষ নিয়ে দিলীপ ঘোষ বলেন, তৃণমূলের মধ্যে টপ লেভেলের দ্বন্দ্ব চলছে। দুজন নেতাকে দুজনকে নেতাকে নেত্রী তাদের অনুগামীদের মধ্যে চলছে লড়াই। নিচের কর্মীদের মধ্যে লড়াই হবে। কংগ্রেসের’ ঝগড়া করতে করতে শেষ হল, তৃণমূলের মধ্যেও ঠিক একই হবে, শিল্পের কথা ভুলে যান, বোমা শিল্প হবে এবারে।