Edible oil : মধ্যবিত্তের মুখে হাসি, দাম কমছে ভোজ্যতেলের

81

মহানগর ডেস্ক : বিগত কয়েক দিন ধরে রান্না গ্যাসের দাম ঊর্ধ্বমুখী। যার জেরে হেঁসেলে আগুন লেগেছে মধ্যবিত্তের। তার ওপর আবার ক্রমশ বেড়েই চলেছে ছিল ভোজ্যতেলের (Edible Oil)। যার জেরে নাজেহাল অবস্থা হয়েছিল আমজনতা। তবে এবার মিলল কিছুটা স্বস্তির খবর। দাম কমছে ভোজ্যতেলের।

আরও পড়ুন : বন্যা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে, বিস্তীর্ণ এলাকা জলের তলায়, মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১০৭

রাশিয়া-ইউক্রেনের যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর আন্তর্জাতিক বাজারে হু হু করে দাম বেড়েছে অপরিশোধিত তেলের। এর জেরে জ্বালানির পাশাপাশি ভোজ্য তেলের দামও বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে সাধারণ মানুষকে এই সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে উদ্যোগী হয়েছে সরকার। বাজারের নজরদারি ও রফতানিতে রাশ টানতেই কিছুটা দাম কমেছে ভোজ্য তেলের। এবার আরও বড় সুখবর, এক ধাক্কায় অনেকটা কমতে পারে তেলের দাম। প্রতি লিটারেই দাম ১০ থেকে ১৫ টাকা কমতে পারে।

গত সপ্তাহেই তৈল উত্‍পাদক সংস্থা আদানি উইলমার ও মাদার ডেয়ারি একাধিক রান্নার তেলের দাম কমানো হয়েছিল। প্রতি লিটারে তেলের দাম প্রায় ১০ থেকে ১৫ টাকা কমানো হয়েছে। দুই সংস্থার তরফেই জানানো হয়েছে, আগামী কিছুদিনের মধ্যেই নতুন দামের এই তেলের প্যাকেট বাজারে পৌঁছে যাবে।

খাদ্য মন্ত্রক সূত্রে জানা গিয়েছে, বেশ কয়েকটি বড় ব্রান্ডের তরফেই ভোজ্য তেলের দাম বেশ অনেকটা কমানো হয়েছে। সর্ষের তেলের দাম যেখানে ১ জুন ১৮৩ টাকা ৬৮ পয়সা ছিল, সেখানেই ২১ জুন তা সামান্য় কমে ১৮০ টাকা ৮৫ পয়সায় দাঁড়িয়েছে। বনস্পতির দামও বর্তমানে ১৬৫ টাকা কেজিতে কমে দাঁড়িয়েছে। সোয়াবিন তেলের দামও ১৬৯ টাকা থেকে কমে ১৬৭ টাকায় পৌঁছেছে। পাম তেলের দাম ১৫৬ টাকা থেকে কমে ১৫২ টাকায় পৌঁছেছে।