Male Fertility Tips : এই বদঅভ্যাসগুলো পুরুষ দেহে কমিয়ে দেয় শুক্রাণুর সংখ্যা!

98
Male Fertility Tips : এই বদঅভ্যাসগুলো পুরুষ দেহে কমিয়ে দেয় শুক্রাণুর সংখ্যা!
নিজের কিছু বদভ্যাসের কারণে নিজেরই বিপদ ডেকে আনছেন না তো?

মহানগর ডেস্ক : নিজের কিছু বদভ্যাসের কারণে নিজেরই বিপদ ডেকে আনছেন না তো? জানেন কি আপনার সামান্য কয়েকটি ভুল কমিয়ে দিতে পারে আপনার দেহ থেকে শুক্রাণু(Male Fertility Tips )। গবেষকরা বলেছেন এমনটা সম্ভব। পুরুষদের সামান্য কিছু বদ অভ্যাস যেগুলি প্রভাব ফেলতে পারে চিরতরে। এমনকি প্রভাব ফেলতে পারে স্বাস্থ্যেও।

আরও পড়ুন, পার্টিতে দেদার নেশা! শক্তি কাপুরের ছেলের হাতে পড়ল হাতকড়া

বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে নারী ও পুরুষ উভয়ের দেহেই স্বাভাবিক ভাবে উৎপাদন ক্ষমতা কমে যায়। বিশেষ করে ৩০ থেকে ৪০-র মধ্যে এই সমস্যা বেশি ভাবে চোখে পড়ে। যার প্রভাব পড়ে শিশুদের উপর। গবেষকরা মনে করেন যখন কোনও পুরুষ যদি ৪০ বছর বয়সী হয়ে যান সেক্ষেত্রে তাঁর শুক্রাণুর সংখ্যা কমতে শুরু করে। অপরদিকে যদি কোনও মহিলা মাতৃত্বের স্বাদ না পায় সে ক্ষেত্রে প্রায় ৫০% দায়ী পুরুষ দেহের কম শুক্রাণুর অবস্থান। ফার্টিলিটি এক্সপার্ট চিকিৎসক গুঞ্জন সাব্রেয়াল জানিয়েছেন, গত কয়েক দশকে পুরুষদের শুক্রাণুর সংখ্যা চোখে পড়ার মতো কমে গিয়েছে। প্রতি ৮ জন ১ জন এর শিকার। কিন্তু শুক্রাণু কমে যাওয়ার কারন কি? সেই প্রসঙ্গে তিনি জানিয়েছেন, অতিরিক্ত ওজন বৃদ্ধি, ঘুম না হওয়া, দৈহিক পরিশ্রম, ঘন্টার পর ঘন্টা ল্যাপটপ কিংবা মোবাইলের সামনে বসে থাকা, ধুমপান ,মদ্যপান ,মাদক সেবন ইত্যাদি মারাত্মকভাবে প্রভাব ফেলে শুক্রাণু জন্মে। তাই পুরুষ দেহে শুক্রাণু সংখ্যা বৃদ্ধি করতে পরিবর্তন আনতে হবে রোজকার জীবনযাত্রায়।

৫ সঠিক অভ্যাসে আসবে পরিবর্তন : নির্দিষ্ট কয়েকটি নিয়ম মানলে পুনরায় স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসা সম্ভব।

১) ধূমপান বা মদ্যপান থেকে বিরত থাকা উচিত। কারণ অতিরিক্ত ধূমপান দেহের টেস্টোস্টেরনের মাত্রা কমিয়ে দেয়।

২) নজর দিতে হবে অতিরিক্ত ওজন বৃদ্ধির দিকে। অল্প বয়সে অতিরিক্ত ওজন বৃদ্ধির প্রভাব পড়ে ডিএনএ-র ওপর। এছাড়া পরিবর্তন হয় বিএমআর-এ। তাই অতিরিক্ত ওজন বৃদ্ধি হলে তড়িঘড়ি শরীরচর্চার দিকে খেয়াল রাখতে হবে।

৩) বর্তমান প্রতিযোগিতায় যুগে দাঁড়িয়ে প্রত্যেকটি মানুষের কমবেশি স্ট্রেস রয়েছে। তবে খেয়াল রাখতে হবে এই স্ট্রেস যেন দৈহিক দিকে প্রভাব না ফেলে। অতিরিক্ত মানসিক চাপ হরমোনে প্রভাব ফেলে। যার ফলে শুক্রাণুর মাত্রা কমে যেতে পারে।

৪) মাদক সেবন থেকে বিরত রাখতে হবে নিজেকে। যতই আসক্তি হোক না কেন, নিজেকেই সেসব থেকে দূরে রাখতে হবে। কারণ অতিরিক্ত মাদক সেবন শুক্রাণু তৈরিতে বাধা দেয়। বিশেষ করে কোকেন বা মারিজুয়ানা মাদক।

৫) সুস্থ স্বাভাবিক জীবন যাপন অবশ্যই প্রয়োজন সুস্থ শরীরের জন্য। যত সুস্থ স্বাভাবিক জীবন-যাপনে দিন কাটানো যাবে ততই শারীরিক এবং মানসিক দিক থেকে উন্নতি হবে।

Male Fertility Tips