গোয়ায় জোট গড়তে কংগ্রেস ও তৃণমূলের সেতুবন্ধন করছেন পাওয়ার!

9

নিজস্ব প্রতিনিধি: গোয়ায় জোট গড়তে কংগ্রেস ও তৃণমূলের সঙ্গে কথা চলছে। মঙ্গলবার এমনই জানিয়ে দিলেন বর্ষীয়ান এনসিপি নেতা শরদ পাওয়ার। তিনি বলেন, বিজেপিকে হারাতে সমমনোভাবাপন্ন দলগুলির সঙ্গে এক সঙ্গে লড়তে চাই। এজন্য তিনি অন্য বিরোধী দলগুলির সঙ্গে কথা বলার ব্যাপারেও আগ্রহ প্রকাশ করেন।

ফেব্রুয়ারি মাসেই গোয়া বিধানসভা নির্বাচন। এই নির্বাচনে শাসক দল বিজেপির হাত থেকে ক্ষমতা কেড়ে নিতে প্রাণপাত করছেন বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারা। গোয়ায় বিজেপি এবং কংগ্রেসের মতো বড় দলগুলি তো রয়েইছে, লড়াইয়ের ময়দানে রয়েছে আপ এবং তৃণমূলের মতো তুলনায় ছোট দলগুলিও। একটি সূত্র মারফত জানা যাচ্ছিল, ৪০ আসন বিশিষ্ট গোয়ায় তৃণমূল প্রার্থী দেবে ৩০টি আসনে। আর বাকি দশটি তারা ছেড়ে দেব মহারাষ্ট্রবাদী গোমন্তক পার্টিকে। তবে তারা যে কংগ্রেসের সঙ্গে জোট বাঁধতে চলেছে, তা জানালনে পাওয়ার। বর্ষীয়ান এই রাজনীতিবিদ বলেন, আমাদের একটাই লক্ষ্য, যেভাবেই হোক বিজেপিকে পরাস্ত করতে হবে। গোয়ায় পরিবর্তন প্রয়োজন। ক্ষমতা থেকে বিজেপিকে হটানোই আমাদের প্রধান লক্ষ্য। তিনি বলেন, গোয়ায় নির্বাচনে বিজেপি সাম্প্রদায়িকতাকে সামনে রেখে লড়বে। তবে আমি নিশ্চিত, সাধারণ মানুষ তা গ্রহণ করবে না।

গোয়ায় জিততে মরিয়া তৃণমূল। গোয়ার একাধিক নেতা কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন। তার জেরে কংগ্রেস-তৃণমূল ফাটল বেশ চওড়া হয়েছে। তাই পাওয়ার কীভাবে কংগ্রেস ভেঙে তৈরি হওয়া তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে জোট প্রস্তাব নিয়ে এগোবে, এখন তাই দেখার।

ফেব্রুয়ারিতেই উত্তর প্রদেশ, উত্তরাখণ্ড, পঞ্জাব, মণিপুর এবং গোয়ায় বিধানসভা নির্বাচন। এই পাঁচ রাজ্যের সবকটিতেই লড়াইয়ের বার্তা দেন পাওয়ার। এখন দেখার, কংগ্রেস-তৃণমূলে আদৌ সন্ধি হয় কিনা!বিজেপিকে হারাতে বিজেপি-বিরোধী বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সঙ্গে কথা বলবেন বলেও জানান পাওয়ার।