গড় ধরে রাখতে তৃণমূলের প্রাক্তনীদের ওপরই নির্ভর করছে বিজেপি!

28

নিজস্ব প্রতিনিধি: গেরুয়া গড় ধরে রাখতে তৃণমূলের প্রাক্তন সৈনিকদের ওপরই নির্ভর করছে বিজেপি। আসানসোলে দলীয় প্রার্থীকে জেতানোর দায়িত্ব ন্যস্ত হয়েছে রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর ওপর। তাঁকে সাহায্যের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে তৃণমূল নেত্রীর আর এক প্রাক্তন সৈনিক অর্জুন সিংয়ের ওপর।

আসানসোল বিজেপির গড় হিসেবেই পরিচিত। চোদ্দর লোকসভা নির্বাচনে এই কেন্দ্রে বিজেপি প্রার্থী করে বাবুল সুপ্রিয়কে। তাঁর প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন তৃণমূলের ডাকাবুকো নেত্রী দোলা সেন। দোলাকে ধরাশায়ী করে হইহই করে জিতে যান বাবুল। আসানসোল দখলের পুরস্কারও পেয়ে যান বাবুল। মোদির মন্ত্রিসভায় ঠাঁই হয়ে যায় নবাগত এই রাজনীতিবিদের।

উনিশের লোকসভা নির্বাচনেও আসানসোলে তৃণমূলের মুনমুন সেনকে পরাস্ত করেন বাবুল। ফের শিকে ছেঁড়ে মন্ত্রিত্বের। এবারও প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব দেওয়া হয় তাঁকে। অহরহ মোদি প্রশস্তির পাশাপাশি তৃণমূল নেত্রীকে তুলোধোনাও করতে দেখা যায় তাঁকে।

মন্ত্রিত্ব খোয়া যাওয়ার পর ভোল বদলান বাবুল। বিজেপি ছেড়ে যোগ দেন তৃণমূলে। সাংসদ পদ ছেড়ে দেওয়ায় ১২ এপ্রিল আসানসোল লোকসভায় হবে উপনির্বাচন। এই নির্বাচনে তৃণমূলকে মাত দিতে তৃণমূলেরই প্রাক্তন সৈনিকদের হাতিয়ার করছেন বিজেপি নেতৃত্ব।

বিজেপি সূত্রের খবর, আসানসোল লোকসভায় তাঁদের প্রার্থী হচ্ছেন তৃণমূলের প্রাক্তন সৈনিক জিতেন্দ্র তিওয়ারি। তাঁকে জেতানোর দায়িত্ব ন্যস্ত হয়েছে বিজেপি নেতা তথা তৃণমূলের প্রাক্তন সৈনিক শুভেন্দু অধিকারীর ওপর। তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে আসা অর্জুন সিংহও ঝাঁপাবেন জিতেন্দ্রকে জেতাতে।

জিতেন্দ্র-শুভেন্দু-অর্জুনের ত্রিফলায় তৃণমূল বিদ্ধ হয় কিনা, সেটাই দেখার।