‘হচ্ছে, হবে’তে ভরা ঘন্টাখানেকের লাইভ, নিজের কাঁধে কোনও দায়ই নিলেন না প্রধানমন্ত্রী

9
kolkata news

মহানগর ডেস্কঃ ফের লাইভ বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। প্রায় এক ঘণ্টা বক্তব্য রাখলেন তিনি। সঙ্গে ছিলেন কেন্দ্রের অন্যান্য মন্ত্রীরা। এক ঘন্টার এই ফাইভে সারমর্ম কী? সোজা কথায়, ‘হচ্ছে, হবে’।

এদিনের বৈঠকের অন্যতম বিষয় ছিল কালোবাজারি। দেশে অতিমারি সংকটের সময়ও কিছু অসাধু মানুষ ভরাচ্ছেন নিজের পকেট। প্রয়োজনীয় ঔষধ, অক্সিজেন এমনকি হাসপাতালের শয্যা নিয়েও উঠেছে কালোবাজারির অভিযোগ। এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী বললেন, ‘আমি রাজ্যগুলির কাছে আবেদন রাখব যাতে তারা শীঘ্রই কালোবাজারি রোধে ব্যবস্থা নেয়।’ এর আগে দেশব্যাপী চলা কালোবাজারির ক্ষেত্রে কেন্দ্রীয় সরকারের নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগ তুলেছিলেন বিরোধী দলের অনেকেই।

অতিমারি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী বললেন, ‘জীবনহানির জন্য দেশবাসী ঠিক যতটা ব্যথিত একজন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে আমিও ঠিক ততটাই ব্যথিত। বর্তমানে আমরা একটি অদৃশ্য শক্তির বিরুদ্ধে লড়াই চালাচ্ছি। কঠিন পরিস্থিতির বিরুদ্ধে ভারত সর্বদাই কঠোর মনোভাব দেখিয়ে এসেছে। আমার বিশ্বাস এবারও আমরা এই পরিস্থিতির বিরুদ্ধে সফলভাবে মোকাবিলা করে উঠে দাঁড়াবো। এবার গ্রামের দিকেও ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ছে। পঞ্চায়েতের কাছে আমার অনুরোধ যেন জরুরি ব্যবস্থা নেওয়া হয়।’

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেছেন, সকলকে আমি অনুরোধ করব যেন প্রত্যেকেই মাছ এবং করণা গাইডলাইন মেনে চলেন। নিজে খেয়াল রাখুন প্রয়োজনে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। ডাক্তার এবং বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ মেনে চলুন। ‘