ভোট প্রচারে ফিট থাকতে চান, তাই হালকা খাবারেই ভরসা রত্না চট্টোপাধ্যায়ের

47
Ratna Chatterjee
ভোট প্রচারে নিজেকে ফিট রাখতে হালকা খাবারেই ভরসা রাখছেন তৃণমূল প্রার্থী।

মহানগর ডেস্ক: হাতেগোনা আর মাত্র কয়েক দিনের অপেক্ষা। আর মাত্র মাঝখানে একটি রবিবার। তার পরের রবিবারে কলকাতার ১৪৪ টি ওয়ার্ডে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে পুরভোট। যার কারণে ইতিমধ্যেই কোমর বেঁধে ময়দানে নেমে পড়েছে প্রার্থীরা। জোরকদমে চলছে ভোট প্রচার। যার মধ্যে একজন হলেন ১৩১ নম্বর ওয়ার্ডের দাপুটে তৃণমূল নেত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায়। জোর কদমে যেমন চালাচ্ছেন ভোটের প্রচার তেমনই খেয়াল নিজের শরীরের দিকেও। ভোটের ময়দানে ফিট থাকতেই মেপে খাওয়া-দাওয়া করছেন তৃণমূল প্রার্থী।

একুশে বিধানসভায় বেহালা পূর্বের বিধায়ক হয়েছেন রত্না চট্টোপাধ্যায়। এবার কলকাতা পুরভোটে ১৩১ নম্বর ওয়ার্ড অর্থাৎ শোভন চট্টোপাধ্যায়র ওয়ার্ড থেকেই তাঁকে প্রার্থী করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রসঙ্গত, ২০১৫ সালের ওই ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ছিলেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। অর্থাৎ কলকাতার প্রাক্তন মেয়র। কিন্তু বেশ কয়েক বছর ধরে সমস্ত কাজ সামলেছেন রত্না চট্টোপাধ্যায় একা হাতেই। তাই এলাকার সাধারণ মানুষও তাঁর ওপরেই বেশি ভরসা করে। সময় অসময়, সুখ দুঃখে সব সময় সাধারণ মানুষের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন তিনি। তাই পুরভোটের ক্ষেত্রে নিজেকে ফিট রাখতে খাওয়া-দাওয়ার দিকে এবার বেশি করে নজর দিচ্ছেন প্রার্থী।

ঘুম থেকে উঠতেই খাচ্ছেন মুসম্বির রস। ব্রেকফাস্টের খাচ্ছেন আটার রুটি। সঙ্গে যেকোনো সবজি। কঠিন পরিস্থিতিতে রাস্তায় বেরিয়ে প্রচার চালানোতে যাতে শরীরে কোনও রোগ ব্যাধির সৃষ্টির না হয়, তার জন্যই চার্ট। একই সঙ্গে আরও জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার এবং শনিবার বাদে সপ্তাহের বাকি দিনগুলি তিনি আমিষ খান। এ প্রসঙ্গে রত্না চট্টোপাধ্যায় নিজেই জানিয়েছেন, আমি শনি ও মঙ্গলবার ছাড়া বাকি সব দিনই আমিষ খাই। এছাড়াও সঙ্গে থাকে হালকা খাবার।