MAHARASTRA CRISIS: সরকারি বাসভবন ছেড়ে নিজের বাড়িতে উদ্ধব, জোরালো হচ্ছে শিন্ডের সঙ্গে সংঘাত

76
সরকারি বাসভবন ছাড়ছেন উদ্ধব ঠাকরে, মাতোশ্রীর সামনে সমর্থকদের ভিড়

মহানগর ডেস্ক: পরতে পরতে জমে উঠেছে নাটক। দলের “স্ট্রং ম্যান” একনাথ শিন্ডের ( Eknath Shinde) বিদ্রোহে সরকারের পায়ের তলার মাটি যখন একটু একটু করে সরছে, ঠিক তখনই মুখ্যমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন (Chief Minister House) ছেড়ে নিজের বাড়ি ফিরে রাজ্য রাজনীতিতে পটপরিবর্তনের ইঙ্গিত দিলেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে ( Uddhav Thakre)। বুধবার সন্ধেতেই সরকারি বাসভবন ছেড়ে ফিরে গেলেন নিজের বাড়ি মাতোশ্রীতে (Matosree)। যেখানে তাঁর সমর্থনে প্রচুর মানুষ জমা হয়েছিলেন। ভিডিওয়ে দেখা গিয়েছে ঠাকরে গাড়ি থেকে নামছেন এবং দর্শনার্থীদের দিকে হাত নেড়ে শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন। ঠাকরের সঙ্গে তাঁর ছেলে আদিত্য ঠাকরেও দেখা গিয়েছে।

মুখ্যমন্ত্রী  ঠাকরে গতকালই কোভিড পজিটিভ বলে জানা গিয়েছে। তবে উদ্ধব সেসব পাত্তা দেননি। মাতোশ্রীতে ফিরে ইঙ্গিত দিলেন তিনি দলের প্রতিষ্ঠাতা বাবা বালাসাহেবের সফল উত্তরাধিকারী। তার আগে ফেসবুকে আবেগপূর্ণ লাইভ ভাষণ দেন উদ্ধব। মহারাষ্ট্রে রাজনৈতিক অস্থিরতার প্রেক্ষিতে সেটিই প্রথম প্রকাশ্য তাঁর প্রতিক্রিয়া। জানান, যদি আমার নিজের লোকেরাই তাঁকে না চান,তাহলে তিনি (পড়ুন একনাথ শিন্ডে) আসুন এবং বলুন। তিনি মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে ইস্তফা দিতে তৈরি। তিনি বালাসাহেব ঠাকরের ছেলে। তিনি পদের মোহ করেন না। আপনারা যদি আমাকে ইস্তফা দিতে বলেন, আমি ইস্তফা দেব। আমার সবকিছু মাতোশ্রীতে নিয়ে যাবো। একটা কিছুও এখানে পড়ে থাকবে না।

তাঁর প্রশ্ন ছিল, আমি ইস্তফা দেবো, কিন্তু বলতে পারেন মহারাষ্ট্রের পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রী শিবসেনা থেকেই হবে তো? তাঁর এই প্রশ্ন যে বিদ্রোহী নেতা একনাথ শিন্ডেকে, সেটা ইঙ্গিতে বুঝিয়ে দেন তিনি। শিন্ডে বালাসাহেবের হিন্দুত্বের আদর্শ তুলে ধরে নিজেকে প্রকৃত শিবসেনা হিসেবে তুলে ধরতে চান। তাঁর স্পষ্ট ইঙ্গিত উদ্ধবের হাতে পড়ে শিবসেনা এখন বালাসাহেবের আদর্শ ভুলেছে। তবে শিন্ডের সরকার ভেঙে ক্ষমতা দখল যে সহজে সম্ভব হবে না এবং বিজেপিকে সরকার গড়ায় সাহায্য করা মোটামুটি বিশ বাঁও জলে, সেটা এখন দিনের আলোর মতোই পরিষ্কার। বিজেপির অবশ্য পরিষ্কার অবস্থান ঠাকরেকে মুখ্যমন্ত্রী করে তারা সরকার গড়বে না। ফলে শিন্ডের এই বিদ্রোহ কতটা সফল হবে, তার জন্য কিছুটা সময় অপেক্ষা করতেই হবে সবাইকে। বিজেপির এই প্রত্যাখ্যান ঠাকরে বনাম শিন্ডের লড়াইকে আরও জোরালো করে তুলেছে।