Home Uncategorised Teen Girl Burnt Houses Of Villagers : মায়ের খারাপ স্বভাব পাল্টাতে গ্রামের একের পর এক বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দিল কিশোরী

Teen Girl Burnt Houses Of Villagers : মায়ের খারাপ স্বভাব পাল্টাতে গ্রামের একের পর এক বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দিল কিশোরী

by Mahanagar Desk
1 views

মহানগর  ডেস্ক:মায়ের স্বভাব ভালো নয়। সেকারণে তাঁর উনিশ বছরের মেয়ে তিতিবিরক্ত। শুধু তিতিবিরক্তই নয়। মায়ের জন্য পরীক্ষায় তার ফলও ভালো হয়নি। সেই রাগে গ্রামে পড়শিদের বাড়িতে একমাস ধরে আগুন ধরিয়ে দিয়ে মায়ের স্বভাব পাল্টানোর চেষ্টা করল মেয়ে (Teen Girl Burnt Houses Of Villagers)। সব মিলিয়ে বারোটি বাড়িতে আগুন লাগানোর পর তাদের গ্রাম থেকে তাড়িয়ে দেওয়া হয়। ওই গ্রাম ছেড়ে যাতে তাদের তাড়িয়ে দেওয়া হয়,সেজন্য ওই কাণ্ড ঘটায় কীর্তি নামে মেয়েটি বলে জানা গিয়েছে।

মায়ের কারণে ইন্টারমিডিয়েট পরীক্ষায় পাস করতে না পারায় সে ওই পথ বেছে নেয়। ভয়ঙ্কর ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণের তিরুপতি জেলার সানামবাটলা গ্রামে। তিরুপতির এসপি (প্রশাসন) জে ভেঙ্কটরাও জানান কীর্তি বিশ্বাস করতো পড়শিদের বাড়িতে আগুন ধরালে তাদের গ্রাম থেকে তাড়িয়ে দেওয়া হবে। ওই ধারণার বশবর্তী হয়ে সে কুসংস্কারের শিকার হয়ে আগুন লাগানো শুরু করে। তার বিশ্বাস হয় এরপর তা মা শুধরে যাবে।

প্রথমে সে তার পরিবারের কাপড়জামা পোড়াতে শুরু করে। কাপড়জামা পোড়ানোর পাশাপাশি কীর্তি খড়ের গাদায় আগুন ধরিয়ে দেয়। সেইসঙ্গে গ্রামে আতঙ্ক ছড়াতে একের পর এক বাড়িতে আগুন ধরাতে শুরু করে। এই ঘটনায় গ্রামে অপদেবতার অভিশাপ থেকে মুক্তি পেতে কয়েকজন পুজোও করে।

খবর পেয়ে স্থানীয় বিধায়ক, পুলিশ ও সরকারি আধিকারিকরা গ্রামে গিয়ে গ্রামবাসীদের মনে সাহস জোগাতে তাদের অভয় দেন। পুলিশ জানায় নিজের বাড়িতে তিনবার জামাকাপড়ে আগুন লাগানোর পাশাপাশি প্রতিবেশিদের বাড়ির জামাকাপড়ে আগুন লাগিয়ে দেয় কীর্তি। এমনকী মায়ের ওপর তার এতটাই রাগ,বিতৃষ্ণা হয় যে রাতে মা যখন তার পাশে ঘুমোচ্ছিল,তখন মায়ের শাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেয়।

সৌভাগ্যক্রমে সে যাত্রায় মা বেঁচে যায়। পুলিশ গ্রামে নজরদারি বাড়ানোর পর গ্রামের বাসিন্দাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে। এমনকী কীর্তির পরিবারের লোকজনদের জেরা করা হয়। শেষপর্যন্ত কীর্তি গত একমাস ধরে তার এই কাণ্ডের কথা স্বীকার করার পর পুলিশ গোটা বিষয়টি জানতে পারে। জানা যায় কীর্তি অতি সামান্য কারণেও কাপড় জামা পুড়িয়েছে। এমনকী তার বান্ধবী কথা না বলায় তার জামাকাপড়ে আগুন ধরিয়েছিল। পুলিশ আগুনে পোড়া জামাকাপড় ফরেনসিক ল্যাবরেটরিতে পাঠানোর পর সেখান থেকে জানানো হয় আগুন ধরাতে কোনও রাসায়নিক ব্যবহার করা হয়নি। কীর্তির কাণ্ড জানার পর পুলিশ তার বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৪৩৫ ও ৫০৬ ধারায় মামলা রুজু করেছে। তার কাছ থেকে তিরিশ হাজার টাকা উদ্ধার করেছে পুলিশ। টাকাগুলি সে তার মায়ের কাছ থেকে চুরি করেছিল বলে জানা গিয়েছে।

You may also like

Mahanagar bengali news

Copyright (C) Mahanagar24X7 2024 All Rights Reserved