কেউ যেন দেশহীন না হন, নাগরিকপঞ্জিতে বাদ পড়া নিয়ে তাৎপর্যপূর্ণ বক্তব্য রাষ্ট্রসংঘের

199

মহানগর ওয়েবডেস্ক: কেউ যেন রাষ্ট্রহীন না হয়ে পড়েন৷ সদ্য প্রকাশিত অসমে নাগরিকপঞ্জি নিয়ে এমনটাই উদ্বেগ প্রকাশ করলেন রাষ্ট্রসংঘের শরণার্থী বিষয়ক হাই কমিশনার ফিলিপ গ্রান্ডি৷ উল্লেখ্য ৩১ আগস্ট চূড়ান্ত নাগরিকপঞ্জিতে অসমের ৩ কোটি ১১ লাখ মানুষের জায়গা হয়েছে৷ বাদ পড়েছেন ১৯ লক্ষেরও বেশি মানুষ৷ রবিবার এক বিবৃতিতে গ্রান্ডি জানান, ১৯ লক্ষর বেশি মানুষ দেশহীন হয়ে পড়লে রাষ্ট্রসংঘের উদ্বাস্তুহীন বিশ্ব গড়ার স্বপ্ন সাংঘিতক ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবে৷ সেই সঙ্গে তিনি মোদী সরকারের কাছে বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনার আর্জি জানিয়েছেন৷ তিনি মনে করেন, এই সমস্যা সমাধানের জন্য সবোর্চ্চমানের আইনি সাহায্য পাওয়া উচিত দুর্গতদের৷

২০১৭ সালের হিসেবে বিশ্বে উদ্বাস্তু দেশহীন মানুষের সংখ্যা ৭ কোটি৷ এরমধ্যে শুধু আফ্রিকায় এই সংখ্যা ৪ কোটির বেশি৷ ফিলিস্তিনতে প্রায় দু’কোটি উদ্বাস্তু আছে৷ ভারতে যেমন স্বাধীনতার শুরু থেকে উদ্বাস্তু একটা জ্বলন্ত সমস্যা৷ ঠিক তেমনই আজকের বিশ্বে আমেরিকায় মেক্সিকান উদ্বাস্তু বিরাট সমস্যা৷

অসমের নাগরিকপঞ্জি নিয়ে সরকারিভাবে  বাংলাদেশ কোনও প্রতিক্রিয়া না জানলেও সেই দেশের নেতা থেকে জনতা সবাই এই নিয়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে৷ প্রাক্তন মন্ত্রী হুমায়ুন কবির সাফ জানিয়েছেন ভারতের বাঙালি মুসলিমদেরও বাংলাদেশে জায়গা দেওয়া উচিত নয়৷ তাঁর কথায় ইতিমধ্যেই রোহিঙ্গা শরণার্থীদের আশ্রয় দিয়ে সেখ হাসিনা সরকার যথেষ্ঠ বিপাকে পড়েছে৷ সেখান থেকে শিক্ষা নিয়ে এখন থেকেই ভারত সরকারের সঙ্গে এই নিয়ে কঠিন মনোভাব দেখানো উচিত বাংলাদেশ সরকারের বলে মনে করেন তিনি৷