Home Featured Durga Puja: ষষ্ঠীতেই মা উমা পাড়ি দেন মর্তে! পূজিতা হন বেল তলায়

Durga Puja: ষষ্ঠীতেই মা উমা পাড়ি দেন মর্তে! পূজিতা হন বেল তলায়

by Silpika Chatterjee

মহানগর ডেস্ক: ঢাকে পড়েছে কাঠি, বেজেছে মঙ্গল শঙ্খ। কৈলাশ ছেড়ে ৫ দিনের জন্য বাপেরবাড়ি এসেছেন মা দুর্গা। চারিদিকে ক্রমশ ভেসে বেড়াচ্ছে পূজোর গন্ধ। যদিও তিলোত্তমা থেকে জেলার প্রতিটি কোনায় বোধনের আগেই মুখ্যমন্ত্রীর হাত ধরে উদ্বোধন হয়ে গেছে একাধিক পূজো মণ্ডপ। প্রথমার দিন থেকেই দর্শনার্থীদের জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে মণ্ডপের দ্বার। কার্যত জন স্রোতে ভাসছে চারিদিক। কিন্তু প্রকৃত কৈলাস থেকে মা দুর্গা ষষ্ঠীতেই পাড়ি দেন মর্তে।

কথিত আছে মহামায়া মহাষষ্ঠীর দিন মা ষষ্ঠী রূপে প্রথম বেল তলাতে আশ্রয় নেন। আর সেখানেই তার আশ্রয়ের ব্যাবস্থা করা হয়েছিল। তাই এই দিনের নাম ষষ্ঠী এবং মণ্ডপে নয়, এই দিন মন্ডপ লাগুয়া কোন বেলতলাতেই মাকে পূজা করা হয়। আর সেখানেই শিশুদের প্রতীক রূপী মা ষষ্ঠীকে সন্তান সন্ততিদের মঙ্গল কামনায় মায়েরা উপস করে পুষ্পাঞ্জলি দিয়ে থাকেন। পাশপাশি আরও একটি প্রথা গ্রাম বাংলাতে চোখে পড়ে। এইদিন গৃহস্থের প্রতিটি ঘরের চৌবন্দির মাথাতে দুর্গা ফল (গ্রামবাংলায় প্রাপ্ত এক ধরনের ফল) দিয়ে ফোঁটা দেওয়া হয়, এটির মাধ্যমে নাকি মহামায়াকে প্রতিটি গৃহস্থে আহ্বান জানানো হয় বলে জানাচ্ছেন দক্ষিন আফ্রিকার ২৪ পরগনার উস্থির বইঞ্চবেড়িয়া গ্রামের এক গৃহবধূ কল্পনা সরদার।

এপ্রসঙ্গে অবশ্য মহানগর ২৪×৭ কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে গ্রামের নির্ভীক সংঘ সার্বজনীন দুর্গোৎসবের পুরোহিত রমেশ চন্দ্র চক্রবর্তী জানাচ্ছেন, ‘যাও যাও গিরি আনিতে গৌরী, উমা নাকি কত কেঁদেছে’। অর্থাৎ শাস্ত্র মতে মা উমা ব্যাকুল হয়ে কাঁদছেন বাপেরালয়ে না আসতে পারার জন্য। তাই গিরিকে নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে উমা অর্থাৎ মা দুর্গাকে মর্ত ধামে আনার। আর এই দিনেই মহামায়ার আগমন হয় বেল তলায়। সেখানে তিনি পূজিতা হন।’ তিনি আরও জানান, ‘এই পূজো শুধু মহিলারা নন, পরিবার ও সন্তানের মঙ্গলের জন্য একজন পুরুষও এই পুষ্পাঞ্জলি দিতে পারেন।’

You may also like

Leave a Comment