আমফান ক্ষতিপূরণ বিলিতে স্বজনপোষণ, পঞ্চায়েত সদস্যের ছেলেকে বেধড়ক মারধর করল গ্রামবাসী

7
kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, বনগাঁ: আমফানে ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণ বিলি নিয়ে স্বজনপোষণের অভিযোগ অব্যাহত। আর এই অভিযোগকে কেন্দ্র করে দিকে দিকে চলছে অশান্তি। কোথাও ভাঙচুর চলছে পঞ্চায়েতে, তো কোথাও আবার পঞ্চায়েত প্রধানকে কান ধরে উঠবস করানো হচ্ছে। সর্বত্রই অভিযোগ উঠছে ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণ না দিয়ে সেই টাকা বিলি করা হচ্ছে নিজের আত্মীয় স্বজনদের মধ্যে। এবার এই অভিযোগকে কেন্দ্র করে পঞ্চায়েত সদস্যের ছেলেকে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ উঠল উত্তর ২৪ পরগনার বনগাঁয়।  আমফানে ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণ না দিয়ে ওই পঞ্চায়েত সদস্য নিজের আত্মীয়দের সেই টাকা পাইয়ে দিয়েছেন অভিযোগ তুলে তার বাড়ির সামনে ঝাঁটা, জুতো নিয়ে বিক্ষোভ দেখান গ্রামবাসীরা। গ্রামবাসীরা ওই পঞ্চায়েত সদস্যের ছেলেকে মারধর করে।

বনগাঁ ধর্মপুকুরিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের সুখপুকুরিয়া গ্রামের ঘটনা। স্থানীয় পঞ্চায়েত সদস্য গোপাল দে’র বিরুদ্ধে অভিযোগ, আমফানে যারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন, তাদেরকে ক্ষতিপূরণের টাকা না দিয়ে তিনি একই পরিবারের দু’জনকে ক্ষতিপূরণ পাইয়ে দিয়েছেন। ক্ষতিগ্রস্তরা ক্ষতিপূরণ পাওয়া থেকে বঞ্চিত হয়েছেন। আমফানে ক্ষতিপূরণের টাকা বিলি নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগ তুলে এলাকার লোকজন ওই তৃণমূল পঞ্চায়েত সদস্যের বাড়ির সামনে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন। সেই সময় গোপাল দে বাড়িতে ছিলেন না। এলাকাবাসী এরপর তার ছেলেকে সামনে পেয়ে বেধড়ক মারধর করে।

যদিও গ্রামবাসীরা দাবি করেছেন, বিক্ষোভ দেখানোর সময় উত্তম যে নামে এক ব্যক্তির মাকে মারধর করেছিল ওই পঞ্চায়েত সদস্যের ছেলে। আর এই ক্ষোভ থেকেই গ্রামের মানুষ তার ওপর চড়াও হয়ে মারধর করে। এই ঘটনায় পঞ্চায়েত সদস্য গোপাল দে জানিয়েছেন, তিনি কোনওরকম দুর্নীতির সঙ্গে যুক্ত নন। এলাকার লোকজন ভিত্তিহীন অভিযোগ তুলে তার ছেলেকে মারধর করেছে।