আমরা দেশ ভাঙছি না, ভাঙছি বিজেপিকে, প্রতিবাদী কণ্ঠ আরও জোরাল কানহাইয়ার

15
bengali news

Highlights

  • গত ৫ জানুয়ারি জহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়াদের উপর ন্যাক্কারজনক হামলার
  • দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আমাদের ‘টুকরে টুকরে গ্যাং’ বলে আখ্যা দিয়েছেন
  • আমরা দেশ ভাঙছি না। শুধু বিজেপিকে ভেঙে টুকরো করব

মহানগর ওয়েবডেস্ক: গত ৫ জানুয়ারি জহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়াদের উপর ন্যাক্কারজনক হামলার প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার দিল্লির রাজপথে বিশাল প্রতিবাদ মিছিলে নেমেছিলেন পড়ুয়ারা। দিল্লির মণ্ডি হাউস থেকে মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রক পর্যন্ত এই মিছিলে উপস্থিত ছিলেন জেএনইউর প্রাক্তনী তথা সিপিআই নেতা কানহাইয়া কুমার সহ বহু পড়ুয়া। সেই মঞ্চে দাঁড়িয়েই বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে রীতিমতো সরব হয়ে উঠলেন কানহাইয়া কুমার। সরাসরি অমিত শাহকে আক্রমণ শানিয়ে তিনি বলেন, ‘দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আমাদের ‘টুকরে টুকরে গ্যাং’ বলে আখ্যা দিয়েছেন। তবে ওনাকে শুধু এটাই বলব, আমরা দেশ ভাঙছি না। শুধু বিজেপিকে ভেঙে টুকরো করব।’

এদিন ওই মিছিলে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে কানহাইয়া বলেন, ‘জেএনইউ শুধু বর্তমান সমাজের জন্য লড়াই করে না, এরা আগামী প্রজন্মের কথা চিন্তা করে লড়াই করে। আমরা শুধু আমাদের কথা ভেবে বাঁচতে শিখিনি। এই দেশের সংবিধান দেশের সমস্ত নাগরিককে শিক্ষা ও স্বপ্ন দেখার অধিকার দিয়েছে। কিন্তু আপনারা আমাদের স্বপ্নকে পিষে মারার পরিকল্পনা করছেন। কিন্তু এটা সম্ভব নয়। পুলিশ দিয়ে মেরে সব কিছু থামিয়ে দেওয়াটা আপনার ভুল ধারণা।’ প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগেই মোদী-শাহকে উদ্দেশ্য করে ঝাঁঝালো স্বরে জেএনইউ থেকে কানহাইয়া কুমারের দাবি ছিল, ‘জেএনইউ সেই সমস্ত বিষয় নিয়েও সরব হয়, যা খবর হয় না। সরকার বড় ভুল করেছে। ওরা বুদ্ধিমান ও মেহনতি শত্রুকে বেছে নিয়েছে।’ পাশাপাশি তিনি আরও বলেন, ‘ওনারা যখন আমাদের টুকরে টুকরে গ্যাং বলে আখ্যা দেয় তখন বেশ গর্বই হয়।’

উল্লেখ্য, জেএনইউ প্রতিবাদরত পড়ুয়াদের উপর মুখোশধারীদের ন্যাক্কারজনক হামলায় ইতিমধ্যেই সরব হয়েছে গোটা দেশ। ওই হামলার জেরে আহত হয়েছে জেএনইউ-র ছাত্র সংসদের নেত্রী ঐশী ঘোষও। এই ঘটনায় পুলিশি নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগ উঠেছে আগেই। দায়ের হয়েছে অভিযোগ। যদিও পুলিশের দাবি গোটা ঘটনার তদন্ত চলছে মুখোশধারীদের বেশ কয়েকজনকে চিহ্নিতও করা গিয়েছে। যদিও এই ঘটনায় আক্রান্তদের দাবি, এই হামলা চালিয়েছে বিজেপির ছাত্র সংগঠন এবিভিপি। গোটা দেশের পাশাপাশি পড়ুয়াদের পাশে থাকতে দেখা গিয়েছে বলিউড অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোনকেও। সব মিলিয়ে জেএনইউ কাছে বেশ চাপে বিজেপি সরকার।