Home Bengal ‘আমার গান’ বলে পড়লেন মহা বিপদে! অঙ্কিতার গানে বাকযুদ্ধ দুই দেশের

‘আমার গান’ বলে পড়লেন মহা বিপদে! অঙ্কিতার গানে বাকযুদ্ধ দুই দেশের

দেখে নিন আসল ঘটনা

by Sushama
32 views

মহানগর ডেস্কঃ ভারত বাংলাদেশের বিতর্ক দীর্ঘকালের। কাঁটাতার এই দুই দেশকে আলাদা করলেও কোথাও যেন এখনো ইলিশ-চিংড়ির তিক্ততা বর্তমান। কিন্তু এত বছর পর দেখা যাচ্ছে, বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে একটা ‘লাভ-হেট’ সম্পর্ক গজিয়ে উঠছে একটু একটু করে।গত কয়েকদিন ধরে এটা ছড়িয়ে পড়েছে অতিমারীর মতো। কখনো ক্রিকেট, আবার কখনো খাদ্যাভ্যাস থেকে রুচি বাদানুবাদ যেন লেগেই আছে। এবার গান নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোলিংয়ের ঝড় উঠেছে। ঝগড়ার কেন্দ্রে সঙ্গীত শিল্পী অঙ্কিতা ভট্টাচার্য। কমলা নৃত্য করে গানকে নিজের বলেই পড়লেন ফ্যাসাদে!

বিতর্কের সূত্রপাত:

আলো ঝলমলে মঞ্চে গান গাইতে উঠেছিলেন মিষ্টি মেয়েটা(Ankita Bhattacharyya)। মাইক হাতে নিয়ে গান শুরুর আগে হঠাৎ বলে উঠলেন ” এই গানটি খুব বিখ্যাত। কারণ ঋতাভরি এই গানে নাচে। দ্বিতীয়ত,’আমার এই গান’ কাতার বিশ্বকাপে, আইপিএলে বাজানো হয়। আর এখানেই বেঁধেছে গন্ডগোল। নেটিজেনদের প্রশ্ন ছোটবেলা থেকে শুনে আসা এই গান কিভাবে নিজের বলে দাবি করে সা রে গা মা পা খ্যাত গায়িকা?

https://www.facebook.com/share/v/PN6SLfBobStWycVv/?

বাংলাদেশীদের মতামত:

সেখানকার জনগণ বলছেন, বাংলাদেশের গান চুরি করে অঙ্কিতা নিজের নামে চালাচ্ছেন। কেউ বললেন এই গান আমরা শিশু বেলা থেকে শুনছি কিভাবে এটা ওনার গান হয়? ‘সিলেটে এই গান বিখ্যাত আমাদের অনুভূতির সাথে মিশে থাকা এই জনপ্রিয় সঙ্গীত। ভারতের মানুষরা নিজের জিনিসে সন্তুষ্ট না। ওদের রুটি রুজি চলে বাংলাদেশের মেরে’ ঠিক এমন ভাষায় মতামত ব্যক্ত করলেন অঙ্কিতার বাংলাদেশের অনুগামীরা।

জেনে রাখুন:

কমলা নৃত্য করে গানটি ওপার বাংলার সিলেটের শাহ আবদুল করিমের। তবে এই গান গেয়েছেন অনেক মানুষ। ইমন থেকে অঙ্কিতা গেয়েছেন দুই বাংলা ও দেশ বিদেশের নামিদামি শিল্পীরা। অঙ্কিতা নিজেও এই গান গেয়ে জনপ্রিয়তা পেয়েছেন। তবে, এবার বিতর্ক বেঁধেছে মারাত্মক মাত্রায়।

অঙ্কিতা ভট্টাচার্য বলিউড এবং টলিউড দুই জায়গায় সমানভাবে খ্যাতি অর্জন করেছেন। তাঁর সঙ্গীতের সাধনা দিন রাত লেগে থাকে। মায়ের হাত ধরে গানে যাত্রা শুরু হলেও, মায়ের সঙ্গে সঙ্গে তিনিও বিখ্যাত হয়েছেন। একের পর এক শোয়ে মন মাতিয়েছেন দর্শকদের। তবে এই ভার্চুয়াল যুদ্ধ বন্ধ করতে হবে। নাহলে বিদ্বেষ, বয়কট, মারপিট- এসবে তিক্ততা আরও বাড়বে। বিশেষ করে পশ্চিমবঙ্গের মানুষ ও বাংলাদেশের মানুষের মধ্যে জন্ম নেওয়া বিদ্বেষের রক্তবীজ ভাঙতে হবে সুরের যাদুতে। আর যা পারেন আগামী প্রজন্মের শিল্পীরাই।

You may also like

Mahanagar bengali news

Copyright (C) Mahanagar24X7 2024 All Rights Reserved