Home Bengal পয়লা বৈশাখের জন্য মজুত করে রাখা দামী মাছ লুট করে পালালো দুষ্কৃতীরা

পয়লা বৈশাখের জন্য মজুত করে রাখা দামী মাছ লুট করে পালালো দুষ্কৃতীরা

প্রত্যেক মাছ ব্যবসায়ী নববর্ষ উপলক্ষে শুক্রবার রাতে, কম বেশি দামী মাছ কিনেছিলেন।

by Mahanagar Desk
32 views

মহানগর ডেস্কঃ পয়লা বৈশাখ এর আগে চোরদেরও টাকার দরকার পড়ে, তা না হলে বাংলা নববর্ষের আগে এমনটা কে করে? এতদিন সোনা-গয়না-টাকা চুরি ছিনতাই এর ঘটনা শুনেছেন। এবার মাছ চুরির গল্পও শুনবেন। পয়লা বৈশাখের জন্য বাজারে মজুত করে রাখা ছিল প্রচুর মাছ, তা বাজার থেকে চুরি গেছে। প্রায় তিন লক্ষ টাকার ক্ষতির সম্মুখীন মাছ ব্যবসায়ীরা।

ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার গভীর রাতে, জানাজানি হয় শনিবার সকালে।নদিয়ার রাণাঘাটের আনুলিয়ায় জগপুর রোডের স্টেট ব্যাংক সংলগ্ন বাজারের কাছে। আনুলিয়া মাছ বাজারে মাছ ব্যবসায়ী হিসেবে সেখানে প্রায় ৬০ জন আছেন। প্রত্যেক মাছ ব্যবসায়ী নববর্ষ উপলক্ষে শুক্রবার রাতে, কম বেশি দামী মাছ কিনেছিলেন। যেমন- পাবদা, ইলিশ, বোয়াল সহ আরও বিভিন্ন ধরণের দামি মাছ। সেই মাছ গুলি বাজারে তাঁদের মাছ ঘরে মজুদ করে রেখেগেছিলেন। কিন্তু শনিবার ভোরবেলা যখন মাছ ব্যবসায়ীরা বাজারে আসেন, বাজার খুলতেই মাছ ব্যবসায়ীদের নজরে পরে সব দামি মাছ চুরি গেছে। টাকার ক্ষতির সংখ্যা দেখে কার্যত মাথায় হাত পড়েছে মাছ ব্যবসায়ীদের। বিষয়টি নিয়ে মাছ ব্যবসায়ীরা রাণাঘাট থানার দ্বারস্থ হয়েছেন ।

বাজার থেকে ব্যবসায়ীদের মজুত করে রাখা লক্ষ লক্ষ টাকার মাছ, দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে চুরির অভিযোগ উঠেতেই, চারিদিকে ব্যাপারটি কৌতূহল চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। খবর দেওয়া হয় পুলিশে, তারপর ঘটনাস্থলে রাণাঘাট থানার পুলিশ এসে পৌঁছয়। কিছুক্ষণ পর ঘটনাস্থলে পৌঁছন রাণাঘাট পুরসভার চেয়ারম্যান এবং স্থানীয় আনুলিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান।

আনুলিয়ার বাজারের ব্যবসায়ীরা জানান, “বাজারে কোনো সিসিটিভি ক্যামেরা নেই। রাতেও কোনো নিরাপত্তারক্ষী বাজারে থাকেনা। আর এই সুযোগের অসৎ ব্যবহার করে কিছু দুষ্কৃতী। রাতের অন্ধকারে সমস্ত মাছ লুট করে চোরেরা পালিয়েছে। ভিবিন্ন দামি মাছ চুরি যাওয়ার মধ্যে, ইলিশ মাছ সব থেকে বেশি চুরি হয়েছে। ক্ষতির পরিমাণ প্রায় তিন লক্ষ টাকা।”

এই ঘটনা কে বা কারা ঘটিয়েছে, বা কারা এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত, তা এখনও জানা যায়নি। স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েত এবং পুরসভার চেয়ারম্যান আশ্বাস দিয়ে জানিয়েছেন বাজারে সিসিটিভি ক্যামেরা বসানো হবে।

You may also like

Mahanagar bengali news

Copyright (C) Mahanagar24X7 2024 All Rights Reserved