Home Bengal এসএসসি নিয়োগ দুর্নীতির রায় কিছুক্ষণে, তাকিয়ে চাকরি প্রার্থীরা

এসএসসি নিয়োগ দুর্নীতির রায় কিছুক্ষণে, তাকিয়ে চাকরি প্রার্থীরা

by Mahanagar Desk
24 views

মহানগর ডেস্ক : রাজ্যের সবচেয়ে চর্চিত ও বড় দুর্নীতি এসএসসি নিয়েগ “দুর্নীতি” মামলার রায় আর কিছুক্ষণেই বার হবে। কলকাতা হাই কোর্টের <span;>বিচারপতি দেবাংশু বসাক এবং বিচারপতি মহম্মদ শাব্বর রশিদির ডিভিশন বেঞ্চ বেলা সাড়ে ১০টায় রায় ঘোষণা করবে। <span;>গত তিন বছরে বাংলার রাজনীতিতে সবচেয়ে আলোড়ন তোলা বিষয় এই নিয়োগ দুর্নীতি মামলা। স্কুলে শিক্ষক এবং অশিক্ষক কর্মচারী নিয়োগে বহু অনিয়মের অভিযোগ রয়েছে। প্রাথমিক স্কুলের টেট এবং এসএসসি-র অর্থাউ মাধ্যমিক, উচ্চ মাধ্যমিক দুই ক্ষেত্রেই নিয়োগ দুর্নরতির রয়েছে অভিযোগ। টেট মামলা আপাতত সুপ্রিম কোর্টে বিচারাধীন। সোমবার এসএসসির চাকরি বাতিলের মামলার রায় ঘোষণা হবে কলকাতা হাই কোর্টে।

এসএসসি মামলার রায় ঘোষণার আগে কলকাতা হাই কোর্টে  নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে। অন্যান্য দিনের তুলনায় বেশি সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে আদালত চত্বরে। যে ভবনে এই রায় ঘোষণা হবে, সেখানে জিজ্ঞাসাবাদ না করে কাউকে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না।

এই রায় ঘোষণার আগে তৃণমূল নেতা কুণাল ঘোষ তাঁর এক্স হ্যান্ডেলে লিখেছেন, “শিক্ষক চাকরি মামলা।
যেখানে ভুল, অন্যায়, ব্যবস্থা হোক। দোষীরা শাস্তি পাক।
কিন্তু, যোগ্য প্রার্থীদের চাকরি যেন বাধা না পায়। @MamataOfficial র সরকার আন্তরিক সদিচ্ছা নিয়ে তাদের চাকরির চেষ্টা করেছে। কিছু অন্যায়কে প্রাধান্য দিতে গিয়ে যেন যোগ্যদের অনিশ্চয়তায় ফেলে না দেওয়া হয়। এদের স্বার্থে যা চেষ্টা দরকার, সরকার করেছে। এদের অবিলম্বে চাকরি দরকার।
আশা করি আদালতের রায়ে এই চাকরির জট খুলতে সরকারের চেষ্টা মান্যতা পাবে।”

সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী কলকাতা হাই কোর্টে বিচারপতি দেবাংশু বসাক এবং বিচারপতি মহম্মদ শাব্বর রশিদির বেঞ্চে গত ডিসেম্বর মাস আগে এসএসসি-র মামলাগুলির শুনানি শুরু হয়েছিল।প্রায় সাড়ে তিন মাস ধরে শুনানি চলেছে। গত ২০ মার্চ শুনানি শেষ হয়। তার পর রায় ঘোষণা স্থগিত রেখেছিল আদালত।
সুপ্রিম কোর্ট এসএসসি-র এই চাকরি বাতিলের মামলা হাই কোর্টে ফেরত পাঠিয়েছিল। হাই কোর্টের বিচারপতি দেবাংশু বসাক এবং বিচারপতি মহম্মদ শাব্বর রশিদির বেঞ্চকে ছ’মাসের মধ্যে মামলার শুনানি শেষ করে রায় ঘোষণার নির্দেশ দিয়েছিল ভারতের সুপ্রিম কোর্ট।

এসএসসি মামলায় প্রায় পাঁচ হাজার চাকরি বাতিলের নির্দেশ দিয়েছিলেন কলকাতা হাই কোর্টের তৎকালীন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। সেই নির্দেশে স্থগিতাদেশ দেওয়া হয়। মামলা যায় সুপ্রিম কোর্ট পর্যন্ত।

এদিকে এই মামলার রায়ের আগের দিন এই বিষয়কে উহ্য রেখে বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী বলেন, “আগামী সপ্তাহে এমন একটা বোম পড়বে, তৃণমূল বেসামাল হয়ে যাবে।”
লোকসভা নির্বাচন চলাকালীন এই রায় শাসক দলের অস্বস্তি বাড়ায় কি না দেখার। এই রায়ের দিকে তাকিয়ে আন্দোলনরত চাকরি প্রার্থীরা। প্রাক্তন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় এই মামলায় সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দেন। প্যানেল বংশিক বা সম্পূর্ণ বাতিল হলে তার বড় প্রভাব পড়বে। রায়ে কি হয় সেটাই দেখার।

You may also like

Mahanagar bengali news

Copyright (C) Mahanagar24X7 2024 All Rights Reserved