Home Featured Gujarat: শুধু গীতা সম্পর্কেই কেন জানবে পড়ুয়ারা? প্রশাসনের কাছে জবাব চায় আদালত

Gujarat: শুধু গীতা সম্পর্কেই কেন জানবে পড়ুয়ারা? প্রশাসনের কাছে জবাব চায় আদালত

by Anamika Nandi
Gujarat: শুধু গীতা সম্পর্কেই কেন জানবে পড়ুয়ারা? প্রশাসনের কাছে জবাব চায় আদালত

মহানগর ডেস্ক: সম্প্রতি স্কুলের পাঠ্যক্রমে ভগবত গীতাকে (Gita) অন্তর্ভুক্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে গুজরাট (Gujarat) সরকার। কিন্তু এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা জানিয়েছে জামিয়াত উলেমা-ই -হিন্দ। এমনকি এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে পিটিশন জমা দিয়েছে মুসলিম এই সংগঠন। প্রসঙ্গে প্রশাসনকে ১৮ আগস্ট-এর মধ্যে বক্তব্য রাখার নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট।

মূলত মার্চের ১৭ তারিখ বিধানসভায় গুজরাট সরকার জানিয়েছে, ২০২২-২৩ সালে ষষ্ঠ-দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত পাঠক্রমে গীতাকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। ষষ্ঠ থেকে অষ্টম শ্রেণী পর্যন্ত সিলেবাসে গীতার বিভিন্ন বিষয় কবিতা, শ্লোক ও গল্পের আকারে পড়ানো হবে। বলা হয়, গুজরাটি বা অন্য কোনও ভাষার মধ্যেই জুড়ে দেওয়া হবে এই অংশগুলি। গীতার বর্ণনা দেওয়া হবে বিভিন্ন মনীষীদের জীবনী পড়ানোর সময়। যত উঁচু ক্লাস হবে তত বিস্তারে গীতা সম্পর্কে জানতে পারবে পড়ুয়ারা।

আরও পড়ুন : ‘তৃণমূলের বিরোধিতা করার মঞ্চ হিসেবে ব্যবহৃত হয় রাজভবন’, মন্তব্য কুণালের 

কিন্তু প্রশাসনের এই সিদ্ধান্তে খুশি নয় মুসলিম সম্প্রদায়ের একাংশ। তাঁরা হাইকোর্টে পিটিশন দাখিল করেছে যে, ‘এটা দৃঢ় সত্য গীতা হিন্দুদের একটি ধর্মীয় গ্রন্থ এবং সেখানে উল্লেখিত সমস্ত মূল্যবোধ হিন্দু ধর্মের নীতির সঙ্গে জড়িত’। পিটিশন দাখিলকারীদের দাবি, “গীতাকে পাঠ্যক্রমে অন্তর্ভুক্ত করায় ভারতীয় সংবিধানের ১৪ ও ২৮ নম্বর অনুচ্ছেদ লঙ্ঘিত হয়েছে”। তাঁদের মতে, এইভাবে কোনও একটি বিশেষ ধর্মে শিক্ষা দিলে সেই ধর্ম বিশ্বাসকে পড়ুয়াদের মধ্যে প্রাধান্য দেওয়া হবে। পরবর্তীতে হাইকোর্টের পক্ষ থেকে প্রশাসনকে এর ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়েছে। আপাতত সকলের নজর রয়েছে পরবর্তী শুনানিতে।

You may also like