‘কয়লা কাণ্ডে কলকাতায় জিজ্ঞাসাবাদ করছে না কেন ইডি?’ হাইকোর্টে ভর্ৎসনার মুখে কেন্দ্রীয় সংস্থা

23

মহানগর ডেস্ক: কয়লাকাণ্ডে রীতিমতো অপমানিত ইডি অর্থাৎ কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। কলকাতা হাইকোর্টের ভর্ৎসনার মুখে পড়তে হলো কেন্দ্রীয় সংস্থাকে। বিধানসভা নির্বাচনের আগে বাংলায় যেভাবে কয়লা পাচার কাণ্ডের তদন্তে নেমে ছিল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা, সেই গতির গেল কোথায়? কেন একজন সাক্ষীকে কলকাতায় নিজাম প্যালেসে কিংবা অন্যত্রে ডেকে জিজ্ঞাসাবাদ চালাতে পারছে না ইডি? সে বিষয়েও রীতিমতো প্রশ্নের মুখে পড়তে হল সংস্থাকে।

মঙ্গলবার কয়লাকাণ্ডের মামলায় শুনানি ছিল কলকাতা হাইকোর্টে। তখনই বিচারপতি রাজাশেখর মান্থা কেন্দ্রীয় সংস্থাকে বলেন, ‘ইডি কি এতই অযোগ্য যে একজন সাক্ষীকে কলকাতায় জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারছে না? আদালত তো তদন্ত করতে বারণ করেনি। তা সত্ত্বেও কেন কোনও পদক্ষেপ নেই? নিজাম প্যালেস বা অন্যত্র কেন জিজ্ঞাসাবাদ করছে না ইডি? মাত্র দু’বার সমন পাঠিয়ে চুপ কেন?’ এরকম একাধিক প্রশ্নের জেরে মুখ পুড়ল সংস্থার।

কয়লাপাচার কাণ্ডে অন্যতম নাম উঠে এসেছে সুমিত রায়ের। যাকে কিনা সাক্ষী হিসেবে গ্রহণ করেছে ইডি। এদিন তাঁর অন্তর্বর্তী নির্দেশের সীমানা বাড়ানো হয়েছে। তারপরই দিল্লিতে তাঁকে দেখে জিজ্ঞাসাবাদ করতে চেয়েছিল কেন্দ্রীয় সংস্থা। কিন্তু কেন দিল্লিতে? সেই বিষয়টিকে চ্যালেঞ্জ নিয়ে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন সুমিত রায়। এদিন সেই বিষয়ে কথা বলতে গিয়ে বিচারপতি রাজাশেখর মান্থা বলেন, ‘কলকাতার নিজাম প্যালেসে ডেকে সুমিত রায়কে জিজ্ঞাসাবাদ করা যেত। কিন্তু কেন তা করা ডাকা হল না?’

তবে শুধুমাত্র সুমিত রায়ই নন, বাংলার বিধানসভা নির্বাচনের আগে এখানকার বেশ কয়েকজনের নাম উঠে এসেছিল কয়লা কাণ্ডে। কিন্তু তারপরেই আর কোনও পদক্ষেপ দেখা গেল না সংস্থার। তা নিয়েও এদিন প্রশ্ন তোলেন বিচারপতি।