শুধু ক্রিকেট খেললেই ভোটে জেতা যায় না: অশোক ভট্টাচার্য

23

মহানগর ডেস্ক: পুরভোটে এক ইঞ্চিও জমি ছাড়তে নারাজ বাম। ২০২১ সালে রাজ্যজুড়ে ভরাডুবি হয়েছিল তাদের। তার পুনরাবৃত্তি এবারে যাতে না হয়, তাই শিলিগুড়িতে আসনসংখ্যা অক্ষত রাখতে ময়দানে নামলেন অশোক ভট্টাচার্য। একুশের পুরভোটের স্বপ্ন পূরণ হয়নি। শূন্যতে গিয়ে ঠেকেছে কাস্তে হাতুড়ি। রবিবার প্রচারে বেরিয়ে শিলিগুড়িতে ক্রিকেটের ব্যাট নিয়ে সময় কাটালেন তৃণমূল প্রার্থী গৌতম দেব। অন্যদিকে বাড়ি বাড়ি প্রচার করলেন সিপিএমের প্রধান শিলিগুড়িতে অশোক ভট্টাচার্য।

তিনি দাবি করেছেন, এবার মানুষ সারা দিচ্ছে। বিধানসভায় হারতে হয়েছে। কিন্তু এবার আর হারতে হবে না। জয় নিশ্চিত সিপিএমের। মানুষের সাড়া পাচ্ছেন বলে তিনি মন্তব্য করেছেন। শিলিগুড়িতে ফের একবার ঘুরে দাঁড়াবে সিপিএম। অশোক ভট্টাচার্যের কথায়, গত পাঁচ বছরে আমরা লড়াই করেছি। আমরা বোর্ড চালিয়েছি। সরকার সাহায্য করেনি। শিলিগুড়ির মানুষ আত্মভিমান। মানুষের আত্মসম্মানের বিরুদ্ধে কেউ কিছু করলে তার বিরুদ্ধে মানুষ আমাদের সঙ্গ দেন। এবারের ভোটে মানুষ আমাদের সঙ্গে থাকবেন।

পাশাপাশি তিনি আরও জানিয়েছেন, লড়াইয়ের ময়দানে শুধু আমি নই, আমার দলের প্রার্থীরা জিতবেন। ভোটের ময়দানে আমরা জিতলে আগামী পাঁচ বছর বোর্ড চালাবো। অন্যদিকে গৌতম দেবকে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, শুধু ক্রিকেট খেললেই ভোটে জেতা যায় না। গতবার ক্রিকেট আমিও খেয়ে ছিলাম। তাছাড়া আমি খেলাও ভালোবাসি। তাই গৌতম বাবু ক্রিকেট খেলছেন। তিনি খেলুন, আমি বাড়ি বাড়ি প্রচারে যাচ্ছি। মানুষের সাড়া পাচ্ছি।

প্রসঙ্গত, ২০০৮ সাল পর্যন্ত শিলিগুড়ি বিধায়ক ছিলেন অশোক ভট্টাচার্য। ২০১১ ভোটে তৃণমূল কংগ্রেস আশায় কিছুটা ভেঙে পড়ে বামফ্রন্ট। কিন্তু ২০১৬ সালে বিধানসভা ভোটে ফের শিলিগুড়ির জয় আসে অশোক ভট্টাচার্যের হাতেই।